Page Nav

HIDE

Grid

GRID_STYLE

Classic Header

{fbt_classic_header}

সদ্য পাওয়া

latest

আবার ভক্তদের মাঝে সেই ভয়

ভারতের সঙ্গে ম্যাচ হলে সবসময় একটু বেশিই তটস্থ থাকেন টাইগার সমর্থকরা। এটা ভারতের ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স নিয়ে নয়, ভারতীয়দের প্রভাব বিস্তারে...

ভারতের সঙ্গে ম্যাচ হলে সবসময় একটু বেশিই তটস্থ থাকেন টাইগার সমর্থকরা। এটা ভারতের ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স নিয়ে নয়, ভারতীয়দের প্রভাব বিস্তারের ক্ষমতা নিয়ে।
মেলবোর্নে ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে সেই স্মৃতির ক্ষত এখনও পীড়া দেয় টাইগার সমর্থকদের। ওইসময় বাংলাদেশি সমর্থকদের দাবি ছিল- আম্পায়ারদের পক্ষপাতমূলক আচরণের কারণেই ভারতের কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ।
ওই ম্যাচে আম্পায়ার ছিলেন ইংল্যান্ডের ইয়ান গোল্ড ও পাকিস্তানের আলীম দার। ম্যাচটিতে রুবেল হোসেনের একটি বলে ক্যাচ দেন রোহিত শর্মা। কিন্তু আম্পায়ার নো বল ঘোষণা করায় তিনি আউট হননি। যদিও টিভি রিপ্লেতে দেখা যায়, রুবেলের ওই বলটি কোমরের নিচে ছিল।
একই ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর ক্যাচ ধরেছিলেন শিখর ধাওয়ান। কিন্তু ধাওয়ানের পা সীমানা স্পর্শ করেছিল কিনা তা রিপ্লেতে ভালো করে না দেখেই আউট দেয়া হয়।
টাইগার সমর্থকদের বিশ্বাস আম্পায়াররা দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করলে ম্যাচের ফলাফল অন্যরকমও হতে পারতো। বৃহস্পতিবার এজবাস্টনে অনুষ্ঠিতব্য দ্বিতীয় সেমিফাইনালে পক্ষপাতিত্বের ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না তো?
কারণ প্রতিপক্ষ হিসেবে রয়েছে সেই ভারত। তবে এবারের ম্যাচে মাঠের আম্পায়ার হিসেবে রয়েছেন রিচার্ড কেটেলবরো ও কুমার ধর্মসেনা। তৃতীয় ও চতুর্থ আম্পায়ার হিসেবে থাকবেন নাইজেল লং ও রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ। এছাড়া ম্যাচ রেফারি হিসেবে থাকবেন ক্রিস ব্রড।
যদিও তাদের নিয়ে সমর্থকদের কোনো আপত্তির কথা এখনও শোনা যায়নি। তবে প্রতিপক্ষ ভারত, তাই পক্ষপাতিত্বের আশংকা উড়িয়ে দিচ্ছেন না টাইগার সমর্থকরা।